রসুনের উপকারিতা ও খাওয়ার সঠিক নিয়ম

রসুন যে আমাদের দেহের জন্য কতটা উপকারী সেটা আমরা সকলেই কমবেশি জানি। রসুন আমাদের দেহের নানান ধরনের উপকার করে। তবে আপনি কি এটা জানেন, পুরুষের ক্ষেত্রে রসুনের উপকারিতা অনেক বেশি। বিভিন্ন যৌন রোগ বিশেষজ্ঞরা প্রমান করেছেন, যে রসুন অকাল বীর্যপাত, ইরেকটাইল ডিসফংশন, লো সেক্স ড্রাইব বা লো সেক্স পাওয়ার ইত্যাদি সমস্যায় খুব ভাল কাজ করে।

যৌন সমস্যায় রসুনের গুরুত্ব:

বিভিন্ন ডাক্তারদের গবেষণায় জানা গেছে, বয়স ৩০ পার হবার পর, দিন দিন যৌন ক্ষমতা কমতে থাকে। অনেকেই আছে, সেক্সের সময় বৃদ্ধি করার জন্য নিয়মিত নানা ধরনের ঔষধ সেবন করে থাকেন। কিন্তু কোন প্রকার ফল পান না। আমি আপনাকে প্রায় ১০০ ভাগ নিশ্চিত করতে পারি, যদি আপনি রসুন খাওয়ার শুরু করেন, কোন প্রকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই যৌন ক্ষমতা বাড়াতে পারেন। একজন পুরুষের শক্তি থাকা খুবই জরুরী। যদি শক্তি না থাকে তাহলে যৌন জীবনে সুখি হতে পারবেননা। রসুনে থাকা ভিটামিন এবং পুষ্টিগুন শরীরে শক্তি জোগায় যা সেক্স লাইফে চমৎকার একটি টনিক ।

অর্ডার করতে ক্লিক করুন
Ad 1

সারাদিন কাজের চাপে থাকার ফলে একটা পুরুষ সবসময় ক্লান্ত থাকে। যার ফলে সেক্সের সময় নার্ভাস থাকে। এমনকি যতোই উত্তেজিত থাকুক না কেন,মনে মনে বিরক্ত বোধ করে। রসুনে থাকা এস-অ্যালিল সিস্টাইন (এসএসি) দুশ্চিন্তা দূর করতে সাহায্য করে। যার ফলে খুব সহজেই আপনি মানসিক ভাবে সুস্থ থাকতে পারবেন।

অনেক সময় নিয়মিত সেক্সের ফলে টেস্টোস্টেরনের মাত্রা প্রায়ই কমতে থাকে। এ সমস্যা সবচেয়ে বেশি হয় নবদম্পতিদের। টেস্টোস্টেরন হরমোন সেক্সের জন্য খুবই ভুমিকা পালন করে-এটা আমরা সকলেই জানি। কিন্তু এটা জানিনা যে, রসুনের থাকা উপাদান টেস্টোস্টেরন বাড়াতে সাহায্য করে।

অর্ডার করতে ক্লিক করুন
Ad 2

যারা নিয়মিত হস্তমৈথুন করেন, বা অতিরিক্ত পর্যায়ে হস্তমৈথুন করে ফেলেছেন, তাদের জন্য সবচেয়ে দ্রুত শুক্রানু বৃদ্ধির উপায় হচ্ছে রসুন বাটা খাওয়া। কাঁচা রসুন খেলে শুক্রানু ঘন হয়। অনেকে আছে, যারা সন্তান নিতে চান, কিন্তু বীর্য ঘন না হবার কারনে, বাচ্চা নিতে পারছেন না। তারা অবশ্যই এটা খেয়ে দেখবেন।

রসুন বাটা যৌনাঙ্গকে মোটা করতে সাহায্য করে। যাতে মিলনের সময় অধিক মজা পাওয়া যায়। অনেকক্ষণ মিলন করতে পারলে, আপনার মিলন সঙ্গিনী বেশি তৃপ্তি পাবে। তাই যদি আপনি আপনার যৌনসঙ্গিনিকে বেশি তৃপ্তি দিতে চান, এখন থেকে খাওয়া শুরু করুন কাঁচা রসুন।

অর্ডার করতে ক্লিক করুন
Ad 3

শুক্রাণু বৃদ্ধির উপায় হতে পারে রসুন

রসুনের সবচেয়ে বড় গুন হচ্ছে এটা কোন প্রকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই আপনার শুক্রনু বৃদ্ধি করে। আপনি হয়তো ভাবতে পারেন, রসুন শুধু মাত্র পুরুষের জন্য কার্যকরী। তবে নারীদের সেক্সের ক্ষেত্রে ইস্ট্রোজেন নামক হরমোন ভুমিকা পালন করে থাকে। আর রসুনে ইস্ট্রোজেন (ESTROGEN) আছে তাই নারীদেরও সেক্স বৃদ্ধি করে। রসুন নারীদের যৌন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

যৌন কামনা বৃদ্ধিতে রসুন

আপনি হয়তো আপনার কোন বন্ধু বা আত্মীয়ের কাছে শুনে থাকবেন, যে তার আর সেক্স করার কোন ইচ্ছা নেই। যার ধীরে ধীরে যৌন কামনা শেষ হয়ে যাচ্ছে। যদি তার বয়স ৫০ এর নিচে হয় (৫০ এর পর যৌন কামনা স্বাভাবিকভাবেই কমতে থাকে) তাহলে আপনি তাকে রসুনের কোয়া কাঁচা তেল দিয়ে খাওয়ার পরামর্শ দিতে পারেন। কারন রসুন যৌন কামনা বৃদ্ধি ঘটায়। এমনকি এটা নারী ও পুরুষ উভয়ের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য।

অর্ডার করতে ক্লিক করুন
Ad 4

রসুন খাওয়ার সঠিক নিয়ম

আপনি হয়তো ভাবছেন, রসুনের মতোন ঝাঁঝালো গন্ধ যুক্ত খাবার কিভাবে খাব? আসলে রসুন মসলা হিসেবে ততাটাও ঝাঁঝালো নয়। পেঁয়াজ এর তুলনায় রসুন একদম সাধারণ একটা মসলা। নিয়মিত খেলে একসময় আপনার অভ্যাসে পরিণত হবে। তখন আর কোন প্রকার বিরক্ত বোধ হবে না।

অর্ডার করতে ক্লিক করুন
Ad 5

সকালে খালি পেটে, মুড়ির সাথে হালকা তেল দিয়ে ভাঁজা রসুন খেতে পারেন। যদিও এতে উপকার অনেকটাই কম। আপনি চেষ্টা করবেন কাঁচা খাবার জন্য। যদিও অনেক বিরক্তি এবং অস্বস্তি লাগবে, তবু খাওয়া চালিয়ে যাবেন।
যদি অতিরিক্ত বমি বমি লাগে, তাহলে মধুর সাথে খেয়ে দেখতে পারেন। মধু আপনার শরীরের কোষ গুলোকে সজাগ করে তুলবে। তাই মধুর সাথে খেলে মজা পাবেন।

Advertisements
Ad 6

কাঁচা আমলকির রস ৩-৪ চামচের সাথে ১ কোয়া রসুন খেতে পারেন। এতে তেতো স্বাদ লাগলেও, পানি খাবার পর আর কোন প্রকার বমি বমি ভাব আসবে না।
খাটি ঘি এর সাথে ভেঁজে খেতে পারেন। এছাড়াও ঘি এর জায়গায় মধু ব্যাবহার করতেই পারেন। তবে ভুলেও তেল ব্যাবহার করবেন না।এতে রসুনের গুনাগুণ নষ্ট হয়ে,তা একপ্রকার বিষে পরিনত হতে পারে। তাই সাবধান!
হালকা গুরো দুধের সাথে সামান্য পানি দায়ে,তার সাথে ২ কোয়া রসুন খেতে পারেন। এতে আপনার অন্ডকোষ সচল থাকবে।

রসুন খাওয়ার অপকারিতা:

আপনি হয়তো ভেবে থাকবেন রসুনের শুধু উপকারিতা আছে। তবে জেনে‌ রাখুন, উপকারিতার পাশাপাশি বেশ কিছু অপকারিতা আছে। যেটা সম্পর্কে ধারনা রাখা অবশ্যক। কারন সব কিছুরই ভালো দিকের পাশাপাশি খারাপ দিক আছে।
প্রতিদিন ৩ কোয়ার বেশি রসুন খাবেন না। কারন এতে আপনার কোষ্ঠকাঠিন্য হতে পারে।
কখনো সকালে রসুন খাবেন না। কারন রসুন খেলে মুখ থেকে দুর্গন্ধ বের হয়। তাই সকালে খেলেও দ্রুত দাঁত ব্রাশ করবেন।

রসুন খেলে বুক জ্বালা করতে পারে। তাই সাবধান থাকুন। অতিরিক্ত জ্বালা পোড়া করলে কয়েকদিন রসুন খাওয়া বাদ দিতে পারেন।
রসুন এলার্জির কারণ হতে পারে। যদি কারো শরীর অতিরিক্ত তৈলাক্ত হয়,তাহলে নিয়মিত না খেয়ে সাপ্তাহে ৩-৪ দিন খাবেন।
কখনোই অতিরিক্ত রসুন খাবেন না। কারন অতিরিক্ত রসুন আপনার শরিরের রক্তকে জমাট বাঁধতে বাধা দিতে পারে।

সঠিক ভাবে রসুন খান, আপনার যৌন ক্ষমতা বাড়াতে বাধ্য।তাই রসুন খাওয়া শুরু করে দিন।এতে আপনার অন্ডকোষ সচল রাখতে সাহায্য করবে। পাশাপাশি অতিরিক্ত বীর্য তৈরি করবে। অপকারিতা দেখে ভয় পাবেন না,কারন রসুনের উপকারিতা বেশি। আর সঠিক উপায়ে ক্ষেতে পারলে কোন সমস্যা নেই।
এরকম মুল্যবান লেখা পড়তে পুষ্টিগুণ এ মাঝে মাঝে আসবেন

অর্ডার করতে ক্লিক করুন
Ad 7

Leave a Comment

অর্ডার করুন