লিঙ্গ মোটা ও শক্ত করার মালিশ ও ঔষধ

লিঙ্গ মোটা করার জন্য প্রতিদিন অনেক প্রশ্ন আসে। কিভাবে লিঙ্গ মোটা করা যায়, কোনো তেল বা মালিশ কি আছে? এগুলো ব্যবহার করলে লিঙ্গ মোটা ও শক্ত হবে? এই বিষয়ে সঠিক পরামর্শ দেয়ার উদ্দেশ্যে আজকের লেখা। আশাকরি আপনার কাজে আসবে।

লিঙ্গ মোটা হওয়ার জন্য প্রচলিত তেল বা মালিশ

লিঙ্গ মোটা বা শক্ত করার জন্য বাজারের প্রচলিত তেল বা মালিশ অনেক ব্যাবহার করেছেন। কিন্তু কোন ফল পাননি, উল্টো আরো ক্ষতি হয়েছে হয়ত। কারন এগুলোতে একধরনের স্টেরয়েড মিশ্রিত ছিল। তাই যতদিন ব্যাবহার করেছেন, ততদিনই ফল পেয়েছেন। ব্যবহার বন্ধ করার পর আগের চেয়ে অনেক খারাপ হয়ে গেছে, এটাই স্বাভাবিক।

অর্ডার করতে ক্লিক করুন
Ad 1

তাই নিজে তৈরী করুন লিঙ্গ মোটা ও শক্ত করার মালিশ বা তেল, এতে একটু কস্ট হলেও প্রতারিত হবার ভয় নেই। এই মালিশ আপনার লিঙ্গকে শক্ত ও মোটা করতে সহায়তা করবে। ছোট ছোট শিরায় তেলে থাকা ভেষজ উপাদানগুলো পৌছাতে পারলে, ও সঠিক নিয়মে ব্যবহার করলে, লিঙ্গের বক্রতা দূর করবে। অবশ্য কয়েকমাস পর্যন্ত ব্যাবহার করা লাগতে পারে।

লিঙ্গের সাইজ কেমন হওয়া উচিৎ

সাধারনত একজন পুরুষের লিঙ্গের সাইজ ৩ ইঞ্চির বেশী হলেই যথেষ্ট। তবে তা কিন্তু সব নারীর ক্ষেত্রে সমান নয়। কিছু কিছু নারীর যোনীপথ অন্যদের চেয়ে একটু ভিন্ন, তাই তাদের ক্ষেত্রে একটু বড় বা মোটা না হলে তৃপ্তি পায়না। এই ক্ষেত্রে আপনি এই মালিশগুলো ট্রাই করতে পারেন।

অর্ডার করতে ক্লিক করুন
Ad 2

লিঙ্গ চিকন হয় কেন

অতিরিক্ত ধু*ম*পানের ফলে বা অতিরিক্ত হস্তমৈথুনের কুফল হিসাবে লিঙ্গ চিকন হওয়ার জন্য দায়ী করা হয়। গবেষকেরা বিভিন্নভাবে একাধিক যুক্তি দেখাতে সক্ষম হয়েছেন যে, অতিরিক্ত নিকোটিন গ্রহনের ফলেও লিঙ্গ চিকন হতে পারে। এবং প্রায় সকল চিকিৎসকদের মতে অতিরিক্ত হস্তমৈথুনের প্রভাবে লিঙ্গ চিকন হওয়ার সাথে সাথে যৌন অক্ষমতা দেখা দিতে পারে।

আবার অনেক চিকিৎসকের মতে অনিদ্রা ও উদ্বেগ থেকেও লিঙ্গ চিকন হতে পারে, কেউ কেউ বলেন হতাশা ও ভীতি আরেকটি কারন হতে পারে। গণোরিয়া ও সিফিলিস রোগীর লিঙ্গ ছোট হতেও দেখা গেছে। তাই লিঙ্গ চিকন বা ছোট হওয়ার সঠিক কারনগুলো রোগীর ইতিহাস না জেনে বলা সম্ভব না।

অর্ডার করতে ক্লিক করুন
Ad 3

লিঙ্গের মালিশ এর তেল জাতীয় উপাদান

লিঙ্গের মালিশ তৈরির জন্য সংগ্রহ করতে হবে কিছু ভেষজ তেল, যা আমরা কমবেশি সবাই এগুলো সম্পর্কে পরিচিত। সব এলাকায় এসব উপাদান না পেলেও একটু খোঁজে নিতে হতে পারে। যেমন-
তিলের তেল, সরিষার তেল, ভেন্নার তেল, তিশির তেল, শুকুরের চর্বি, জয়তুনের তেল বা অলিভ অয়েল, চামেলীর তেল, এগুলো সংগ্রহ করে নিবেন।

সবগলো একত্রে মিশিয়ে তাতে এগনাস কুইন প্রতি ২০ মিলিতে ১০ ফোটা দিবেন। তারপর একটি কাচের বোতলে সংরক্ষণ করে সকাল বিকাল ২ বার লিঙ্গের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত ২০-২৫ বার ধীরে ধীরে ম্যাসেজ করবেন। এভাবে ২-৩ মাসে সন্তোষজনক ভাবে লিঙ্গ মোটা হবে।

অর্ডার করতে ক্লিক করুন
Ad 4

লিঙ্গ মোটা করার ঔষধ এর প্রস্তুত প্রণালী

মালিশ বা তেল তৈরির জন্য প্রথমে ৭/১৪/২১ এই হারে বিষমাদাল বা কালো মাঞ্জাল পিঁপড়া জীবিত ধরতে হবে। এরপর একটি কাঁচের বোতলে ১০০/২০০/৩০০ মিলি সরিষার তেলের মধ্যে মাঞ্জালগুলোকে ছেড়ে বোতলের মুখ ভালভাবে লাগিয়ে, গরুর গোবরে ডুবিয়ে রাখতে হবে, ৩ দিন।

অর্ডার করতে ক্লিক করুন
Ad 5

তারপর বোতল খোলার আগে ভাল করে ধুয়ে নিবেন। এবার তেলটা ছেঁকে সমপরিমান তিল, তিশি ও ভেন্না মেশাবেন। এবার ধূতরা মুল আধা কেজি পরিমান ও আধাকেজি কাঁকড়ার মাংসকে ঐ তেলে চারগুন পানিসহ জ্বাল দিবেন। পানি শুকিয়ে এলে শুধু তেলটুকু আছে, বুঝতে পারলে নামিয়ে নিবেন।

Advertisements
Ad 6

এবার সবগুলো ছেঁকে নিবেন। এখন
২ কাপ আকন্দ গাছের আটা ও ২ কাপ শুকরের চর্বি সহ সবগুলো মিশ্রিত করুন। এই মিশ্রণকে আগেকার কবিরাজগন মদন বিলাস মালিশ সহ শাহী মালিশ নামেও ডাকতেন। তখনকার আমলেই এই মালিশ জমিদারদের নিয়োজিত কবিরাজ ছাড়া কেউ জানতনা।

লিঙ্গের মালিশের উপকারিতা

লিঙ্গ মোটা লম্বা ও শক্ত হলে সঙ্গীনী একটু বেশী আনন্দ পাবে এটাই স্বাভাবিক। তাই সবাই চায় তার লিঙ্গ মোটা করার কোন ঔষধ থাকলে তা ব্যবহার করতে। উপরের ফর্মূলাগুলোর যেকোন একটি তেল তৈরি করে ব্যবহার করলে ভাল ফল পাবেন।

এই মালিশ নিয়মিত ব্যাবহারে লিঙ্গে রক্তসঞ্চালন ব্যাহত হওয়া থেকে রক্ষা করে। স্পর্শকাতরতা দূর করবে, লিঙ্গের বক্রতা দূর করতে সহায়তা করবে। ছোট ছোট শিরাগুলোকে সতেজ করে পেশীকে উন্নত করার মাধ্যমে লিঙ্গের আকার মোটা করবে। এবং লিঙ্গ শক্ত করে মিলনে পুর্ণ সূখ দিতে সহায়তা করবে।

যাদের লিঙ্গ নেতিয়ে পড়েছে, তারা গন্ধগকুল লিঙ্গের মালিশ কয়েক সপ্তাহ নিয়মিত ব্যবহার করে ভাল ফল পেতে পারেন। নেতিয়ে পড়া লিঙ্গ আবার সতেজ, শক্ত, ও মোটা হতে পারে। লিঙ্গ মোটা করার ঔষধ বলতে, সবই বাহ্যিক ব্যবহারের জন্য। তবে খাওয়ার জন্যও কিছু পুষ্টিকর খাবার আছে, এগুলোও নিয়মিত খাবেন। লিঙ্গ মোটা ও শক্ত হবে।

লিঙ্গের তেল ব্যাবহার করার নিয়ম

প্রতিদিন সকালে ও রাতে হাতের তালুতে সামান্য তেল নিয়ে লিঙ্গের গোড়া থেকে সামনের দিকে হাত দ্ধারা ধীরে ধীরে নিচের দিকে মালিশ করতে হবে। কখনই আগা থেকে গোড়ার দিকে আসা যাবেনা। এবং গতি বাড়ানো যাবেনা, এতে বীর্যপাত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাতে হিতে বিপরীত হতে পারে। যদি সম্ভব হয়, রাতে রান্নার পর একটি পানে ঐ তেল মাখিয়ে চুলার হিটে কিছু তাতিয়ে নিবেন। অতপর এই পান লিঙ্গের চতুর্পাশে মুড়িয়ে আধাঘন্টা রেখে দিন। চমৎকার ফল পাবেন।

লিঙ্গ মোটা করার চমৎকার একটি সহজ মালিশ তৈরি করার নিয়ম

৮০ মিলি খাটি সরিষার তেলে ১০ মিলি এগনাস মাদার ও ১০ মিলি টার্নেরা মাদার মিশিয়ে ভাল করে ঝাকিয়ে নিবেন। একটি লিঙ্গ শক্ত করার মালিশ তৈরি হয়ে গেল। তারপর এই মালিশ দিনে ২ বার লিঙ্গে ব্যাবহার করলে লিঙ্গ শক্ত ও মোটা হবে।

বাজারে প্রচলিত লিঙ্গ মোটা করার তেল

বাজারে অনেক কোম্পানির তেল বা মালিশ পাওয়া যায়, এর মধ্যে তিলা জাদীদ হলো ইউনানি ফর্মুলার তেল, শ্রী গোপাল তৈল হলো আয়ুর্বেদীক মালিশ। এছাড়াও রতি বিলাসী নামেও একটা মালিশ ছিল, এখন আছে কিনা জানিনা। এমন অনেক মালিশ আছে, তবে কোম্পানি যদি ভাল হয় তাহলে ব্যাবহার করে দেখতে পারেন। অথবা পুরাতন কবিরাজ যদি আশেপাশে থাকে, উনাকে দিয়ে এই মালিশটা তৈরী করে নিতে পারেন। আশাকরছি ২ মাস ব্যাবহার করলে ৭০ বছর বয়সেও আপনার যৌনশক্তির কমতি হবেনা।

এছাড়াও লিঙ্গ মোটা ও শক্ত করার বেশকিছু আয়ুর্বেদিক তেল সাজেষ্ট করছি, যা ধ্বজভঙ্গাধিকার হিসাবে পরিচিত এবং কার্যকর। এগুলোর মধ্যে “মহাচন্দনাদি তৈল” এ মোট ৩৭ টি ভেষজ আছে। প্রমেহ মিহির মালিশ এ ৪৩ টি উপাদান আছে, যা ইন্দ্রিয় শিথিলতায় কাজ করে। এগুলো এখন অনেক কোম্পানিই উৎপাদন বন্ধ করে দিয়েছে। কারন উৎপাদন ব্যয় বেশী হয়, কিন্তু সাধারণ মানুষ এগুলো নিয়ে বিভিন্ন মন্তব্য করে। মানুষের আস্থা কমে যাওয়ায় তেমন বিক্রি হয়না। তবে, হারবাল নিয়ে গবেষণা করে, যতটুকু জানতে পেরেছি, তা হলো লিঙ্গ মোটা ও শক্ত করার জন্য এগুলো অব্যর্থ মালিশ ছিল।

শেষ পর্যন্ত সাধনা ঔষধালয়, মোজাহের ঔষধালয়, শক্তি, এপি, সহ কয়েকটি আয়ুর্বেদিক কোম্পানি বিগত দশক পর্যন্তও নিজেদের ঐতিহ্যকে ধরে রাখার চেষ্টা চালিয়ে গিয়েছিল। কিন্তু মানুষ যদি না চায়, কত লস দেয়া যায়? তাই আমার জানামতে এখন হয়ত প্রোডাকশন বন্ধ আছে।

লিঙ্গ মোটা ও শক্ত করার ঔষধ কি

লিঙ্গ মোটা ও শক্ত করার ঔষধ বলতে স্নায়ুবিক শক্তিবর্ধক ঔষধকেই বুঝায়। লিঙ্গ শক্ত হয় স্নায়ুশক্তির মাধ্যমে। তাই স্নায়ুবিক দূর্বলতা দূর করতে পারলে, লিঙ্গ আগের চেয়ে অনেক শক্তিশালী হবে। এর জন্য নিউরোবেষ্ট জাতীয় ঔষধ ১ টা করে দিনে ২ বার, ২ মাস খেতে হবে, সাথে জিংক সহ আয়রন ফলিক এসিড খেতে পারেন। বিস্তারিত পরামর্শ পেতে আমাদের সাথে যোগাযোগ করার অপশন দেয়া আছে। প্রয়োজনে নক করবেন।
এছাড়াও sildenafil 50mg ট্যাবলেট খেলে লিঙ্গ লৌহ দন্ডের মতো শক্ত হয়।

সান্ডার তেল কি পেনিস শক্ত করে?

সান্ডার তেল বলে কিছু আছে বলে আমার মনে হয়না। এবং এই তেলের বৈজ্ঞানিক কোন প্রামানাধী এখনও খুজে পাইনি। তবে উপকারী কিছু ভেষজ ও প্রণীজ তেল শরীরের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গসমূহের শিরা উপশিরার মধ্যদিয়ে পৌছে, রক্তসঞ্চালনকে ত্বরান্বিত করতে পারে। এবং নরম কোষগুলোকে বিকশিত করে, এর কার্যক্ষমতা বৃদ্ধিতে অনন্য ভুমিকা রাখতে পারে। এধরণের তেলকে সান্ডা বা অন্য কোনো নামে যদি ব্যবহার করে থাকে সেটা অন্য বিষয়। আমরা বিজ্ঞান ভিত্তিক আলোচনা ও পরামর্শ বিনিময়ে বিশ্বাসী। কোন অবৈজ্ঞানিক তথ্য নিজেও গ্রহন করিনা এবং তা প্রচার করতেও চাইনা। সান্ডার তেল ব্যবহারের নিয়ম আশাকরি এরকমই হবে- যেমনটা উপরে লিখা হয়েছে।

ইরেক্টাল ডিস্ফাংশন এর চিকিৎসা করাতে চাইলে

যাদের লিঙ্গ একেবারেই নেতিয়ে পড়েছে বা সামান্য শক্ত হলেও আবার নরম হয়ে যায়, মাঝে মাঝে মনে হয় লিঙ্গ ছোট হয়ে গেছে সে সকল পুরুষ স্থায়ী চিকিৎসা করাতে চাইলে আমার সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। ইনশাল্লাহ চিকিৎসা নিলে আপনার পুরুষাঙ্গ আগের চেয়ে অনেক ষ্ট্রং ও বড় দেখাবে যখন প্রয়োজন হবে। স্ত্রীর কাছে যাওয়া মাত্রই পেনিস শক্ত হতে থাকবে, অনেক সময় দেখবেন বীর্যপাত হওয়ার পরও লিঙ্গ শক্ত হয়ে আছে। ঔষধের দাম একটু বেশি, তাই সবাইকে উৎসাহিত করিনা, ৪৫০০ টাকা খরচ হবে ১ মাসের চিকিৎসায়। ইনশাল্লাহ যাদের তেমন বেশি সমস্যা নাই, তারা ১ মাসেই সুস্থ্য হয়ে যাবেন। আমার হোয়াটসএ্যাপ নাম্বার 01719551547 তবে কল করার আগে মেসেজ দিবেন। আমিই সময় করে কল দিবো।

লিঙ্গ মোটা করার ব্যয়াম

যদি মেডিক্যাটেড কোন অয়েল বা মালিশ সংগ্রহ করতে না পারেন, তাহলে সাধারন ৪ টি তেল একত্র করে নিবেন। তা হলো- তিল, তিশি, ভেন্না ও সরিষার তেল। এই ৪টি তেল সমপরিমাণ নিয়ে একটি মালিশ তৈরী করে, লিঙ্গের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত ধীরে ধীরে মালিশ করবেন। এটাকে বলা হয় লিঙ্গ মোটা করার ব্যয়াম। প্রতিবার ৫০ টান করে ব্যয়াম করবেন। রোজ ১ বার করে এভাবে ৩ মাস করবেন। ইনশাআল্লাহ লিঙ্গের সাইজ একটু বড় হবে।

এখানে লিঙ্গ মোটা করার ঔষধ সম্পর্কে যা ই বলার চেষ্টা করেছি, তা ই কোন না কোন সোর্স বা মাধ্যম থেকেই লিখেছি। তবুও কোন বিষয়ে যদি আপত্তি থাকে, তাহলে অনুগ্রহ করে কমেন্টে জানাবেন। আপনার একটি মন্তব্য আমাদের কাছে অত্যান্ত মুল্যবান। তবে কপি করা থেকে বিরত থাকবেন। কোন প্রয়োজনে হারবাল ষ্টোরে দেখতে পারেন, লিঙ্গ মোটা করার ঔষধ স্টকে আছে কিনা। সুস্থ্য থাকুন

আরও পড়ুন – রসুনের উপকারিতা

অর্ডার করতে ক্লিক করুন
Ad 7

3 thoughts on “লিঙ্গ মোটা ও শক্ত করার মালিশ ও ঔষধ”

    • যেভাবে সমস্যার কথাগুলো বলেছেন, এভাবে কেও বলে?

      Reply
  1. Ami Jalal Uddin Ahmed Chowdhury pappu dmd NCC bank Panthapath branch Dhaka Bangladesh.amar linggo gorom hoy na amar bou amar linggo mukhey nay na r amar bou er sonay anggul dtey day na kindly amay mail din r somadhan din

    Reply

Leave a Comment

অর্ডার করুন